বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ০২:৩৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
ভালোবাসা নিখোঁজ রূপগঞ্জে বিপুল ভোটে বিজয়ী উপজেলা চেয়ারম্যানের সাথে ফুলের শুভেচ্ছা বিনিময় করেন স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা আলমগীর হোসেন মাতোয়ারা রূপগঞ্জে বন্ধুদের সাথে গোসল করতে নেমে পানিতে ডুবে কলেজ ছাত্রের মৃত্যু মধুপুরে বিদ্যুৎপৃষ্ট হয়ে এক যুবকের মৃত্যু মধুপুর উপজেলা প্রশাসন ও ইসলামিক ফাউণ্ডেশনের উদ্যোগে ইমামদের সাথে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত ঈদগাঁও বাজারের বাঁশঘাটায় অগ্নিকাণ্ডে ৪২টি দোকান পুড়ে ছাই : আহত ২  তাৎক্ষণিক অভিনয়ে জাতীয়পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ হয়েছে মধুপুরের সাবিকুন্নাহার বানী বিলাইছড়ি উপজেলায় ৪ নং বড়থলি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়াম্যান আতোমং মার্মা গুলিবিদ্ধ পাইকগাছা উপজেলা নির্বাচনে প্রতীক বরাদ্দের পর চলছে প্রার্থীদের বিরামহীন প্রচার-প্রচারণা

পুঠিয়ার হোজা নদীর তীরে দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর জ্বললো শিক্ষার আলো

টি আই, মাহামুদ - বার্তা সম্পাদক
  • Update Time : রবিবার, ৯ জুলাই, ২০২৩
  • ১৪৭ Time View

 

জাকির হোসেন, রাজশাহী

সামাজের সুবিধাবঞ্চিত ও পিছিয়ে পড়া ছিন্নমূল শিশুদের কাছে স্কুল শব্দটিই যেন একটি স্বপ্ন। পুঠিয়া উপজেলার পূর্ব বারইপাড়া গ্রামে দীর্ঘ ৫০ বছর প্রতীক্ষার পর সেই স্বপ্ন পূরণ করলো ‘হযরত আনাস (রা.) নূরানী এন্ড কিন্ডার গার্ডেন’। আনাস ইবনে মালেক (রা.) রাসুলুল্লাহ (সা.)-এর বিখ্যাত সাহাবি ও বিশেষ খাদেম ছিলেন। তাঁর নাম অনুসারে কিন্ডারগার্টেনের নামকরণ করেছে এলাকাবাসী।২০২১ সালের আগস্ট মাস থেকে ছোট পরিসরে ১৫-২০ জন শিশুকে নিয়ে পড়ানো শুরু করা হয়। ২০২২ সালে প্রায় ১৫০ জন শিশু এই প্রতিষ্ঠানে ভর্তি হয়, ২০২৩ সালে ২২৫ জন শিশু অত্র নূরানী এন্ড কিন্ডারগার্টেন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পড়াশুনার জন্য ভর্তি হয়।জানা গেছে, পুঠিয়া, চারঘাট, নাটোর সদর ও বাগাতিপাড়া উপজেলার প্রান্তিক গ্রাম পূর্ব-বারইপাড়া, সর্দারপাড়া, জয়রামপুর, পাইকপাড়া, কারিগর পাড়া, ও জাইগীর পাড়া। এই গ্রামগুলো হোজা নদীর তীরে অবস্থিত। গ্রামের অধিকাংশ লোকজন নি:স্ব, ভূমিহীন ও শিক্ষা বঞ্চিত। গ্রামগুলোর ৩-৪ কি.মি এর মধ্যে কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান নেই। নদীর তীরবর্তী গ্রাম হওয়ায় অত্র অঞ্চলে মাদকের অভয়াশ্রম গড়ে উঠেছে।গ্রামের যে কয়েকটি শিক্ষিত পরিবার আছে, তাদের দীর্ঘদিনের দাবি একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, যেটি ছিল অনেক কাঙ্ক্ষিত, অনেক স্বপ্নের, অনেক সাধনার। গ্রামবাসী জনপ্রতিনিধি ও প্রশাসনের কাছে নানাভাবে একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের জন্য আবেদন নিবেদন করেছে। দীর্ঘ প্রায় ৫০ বছর একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের জন্য অত্র গ্রামগুলো প্রতীক্ষা করেছে।হযরত আনাস (রা.) নূরানী এন্ড কিন্ডার গার্ডেনের প্রধান শিক্ষক মাসুদুর রহমান বলেন, “আমার বাপ-দাদা ও গ্রামবাসী একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গড়ার জন্য অনেক চেষ্টা করেছেন। আমরাও অনেক ধারে ধারে ঘুরেছি। তালুকদার গ্রামের হযরত আনাস (রাঃ) নূরানী এন্ড কিন্ডারগার্টেন আমাদের ও আমাদের পূর্ব পুরুষদের প্রবল আকাঙ্ক্ষার প্রতিফলন। এর ফলে দীর্ঘ ৫০ বছর প্রতীক্ষার পর আমাদের গ্রামে সর্বস্তরে শিক্ষার আলো পৌছালো”।তালুকদার গ্রাম আশ্রয়ণের বাসিন্দা মো. ফারুক বলেন, “আমার ছেলে মো. ইব্রাহিম অত্র বিদ্যালয়ের ৩য় শ্রেণিতে পড়ে। তালুকদার গ্রামে প্রতিষ্ঠানটি হওয়ায় গ্রামের মান বেড়েছে। বাচ্চাদের আচার-আচারণে অনেক ইতিবাচক পরিবর্তন দেখা যাচ্ছে। বাচ্চারা সামাজিকতা শিখছে”।
পূর্ব বারইপাড়া গ্রামের বাসিন্দা মো. ফারুক হোসেন বাবু বলেন, “আমার মেয়ে মোছা. ফারহানা অত্র বিদ্যালয়ের ২য় শ্রেণিতে পড়ে। এই প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার মান অনেক ভাল। আমরা খুশি। আমাদের মনের লালিত স্বপ্ন পূরণ হতে চলছে”।জয়রামপুর গ্রামের বাসিন্দা নূর আলম বলেন, “আমার ছেলে জোবায়ের হোসেন অত্র বিদ্যালয়ের ১ম শ্রেণিতে পড়ে। অত্র প্রতিষ্ঠানটি ধর্মীয় শিক্ষা ও স্কুলের একাডেমিক শিক্ষা দিয়ে আমার সন্তানকে গড়ে তুলছে। বাড়ির কাছে স্কুল পেয়েছি। এর চাইতে আনন্দের কি হতে পারে”।
এই প্রতিষ্ঠানের সভাপতি ও লস্করপুর মহাবিদ্যানিকেতন সাবেক অধ্যক্ষ মো. নাসির উদ্দিন প্রাং বলেন, “এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ধর্মীয় শিক্ষা ও স্কুলের একাডেমিক শিক্ষার সুসমন্বয় রয়েছে। আমরা আমাদের শিক্ষকগণকে পর্যাপ্ত প্রশিক্ষণ দিয়েছি। হযরত আনাস (রাঃ) আমাদের প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) এর বিখ্যাত সাহাবী ও ১০ বছরের খাদেম ছিলেন।এলাকাবাসী ও জনপ্রতিনিধিগণ মাদ্রাসা ও স্কুলের নাম হিসেবে অত্র নামটি পছন্দ করেছেন। সংসদ সদস্য ও অন্যান্য জনপ্রতিনিধিগণ লিখিতভাবে সম্মতি দিয়েছেন। ভবিষ্যতে এই প্রতিষ্ঠানকে দাখিল / এস. এস. সি পর্যায়ে উন্নীত করার চেষ্টা করা হচ্ছে”।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
Design & Develop BY Coder Boss
themesba-lates1749691102