বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ০৯:০৬ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :

লামায় ছাত্রলীগের ঘোষিত কমিটির এক বছর পূর্তিতে মিছিলে মিছিলে মুখরিত উপজেলা শহর

ইকরামুল হাসান : প্রকাশক
  • Update Time : রবিবার, ১০ সেপ্টেম্বর, ২০২৩
  • ৯৭ Time View

 

ইসমাইলুল করিম, নিজস্ব প্রতিবেদক 

আজ রবিবার (১০ সেপ্টেম্বর) বান্দরবান জেলার লামা উপজেলা, পৌর ও কলেজ ছাত্রলীগের ঘোষিত কমিটির একবছর পূর্ণ হয়েছে। সম্মেলন হয় ২২ সালের ১০ সেপ্টেম্বর আদর্শ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে। সেখানে জাতীয় সংগীত, জাতীয় পতাকা ও দলীয় পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে সম্মেলনে আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়ে প্রথমে আলোচনা সভা ও পরে কাউন্সিলরদের সরাসরি ভোটে লামা উপজেলা, পৌরসভা ও কলেজ ছাত্রলীগের নেতা নির্বাচন হয়। সম্মেলনে উদ্বোধক হিসেবে অংশ নেন- বান্দরবান জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি কাউসার সোহাগ।, প্রধান বক্তা ছিলেন সাধারণ সম্পাদক জনি সুশীল।

২য় অধিবেশনে কাউন্সিলরদের সরাসরি ভোটে উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মো. শহিদুল ইসলাম সাদ্দাম, সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান রণি, পৌর ছাত্রলীগে সভাপতি সুমন মাহমুদ, সাধারণ সম্পাদক ফখরুল ইসলাম হেলাল ও সরকারি মাতামুহুরী কলেজ ছাত্রলীগে সভাপতি সালাউদ্দিন ভূইয়া নাহিদ , সাধারণ সম্পাদক মো.আরিফুল হক’কে নির্বাচিত হন।

এ কমিটির এক বছর পূর্তি উপলক্ষে রবিবার বাংলাদেশ ছাত্রলীগ শিক্ষা, শান্তি, প্রগতি প্রগতি, তোমার আমার ঠিকানা পদ্মা, মেঘনা, যমুমা, তুমি কে আমি কে, বাঙালি বাঙালি, তোমার নেতা, আমার নেতা শেখ মুজিব শেখ, লাল সবুজের পতাকায় মুজিব তোমায় দেখা যায়, এক মুজিব লোকান দরে লক্ষ মুজিব ঘরে ঘরে – এসব শ্লোগান মুখরিত বান্দরবান জেলার লামা উপজেলা শহর।

ছাত্রলীগের ঘোষিত এসব কমিটি একবছর পূর্ণ হওয়ায় সরকারি মাতামুহুরী কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি সালাউদ্দিন ভূইয়া নাহিদ বলেন- বাংলাদেশ ছাত্রলীগের আগামী দিনের চ্যালেঞ্জ হচ্ছে বিশ্বের শিক্ষা মানচিত্রে বাংলাদেশ কলেজ ও স্কুলগুলোকে জায়গা করে নেওয়ার দিকে এগিয়ে নিতে হবে। আমাদের অন্যতম লক্ষ্য বিশ্বের শিক্ষা মানচিত্রে জায়গা করে নেওয়া। যেহেতু স্মার্ট বাংলাদেশের ধারণাটি আমাদের শিক্ষার্থীদের মনের মধ্যে জায়গা করে নিয়েছে সেহেতু আমাদের ক্যাম্পাসগুলো যেন স্মার্ট হয়, সেটা করা। তিনি আরও বলেন, অর্থনৈতিক রূপান্তর মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে ও পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি পাহাড়ি উন্নয়ন নিশ্চিত করা। সে অর্থনৈতিক রূপান্তরের উপযুক্ত শিক্ষা যেন শিক্ষার্থীদের ভেতরে জাগ্রত হয়। কারণ শ্রমনির্ভর শিল্পব্যবস্থা থেকে আমরা যখন যান্ত্রিক শিল্পব্যবস্থায় চলে যাব তখন আমাদের বর্তমানে বিশ্বে যেসব বিষয় নিয়ে লেখাপড়া করানো বা প্রথাগত যেসব দক্ষতা আছে সেসব হয়তো কাজে নাও লাগতে পারে। সেজন্য আমাদের আর্টিফিশিয়াল ইন্টিলিজেন্স, কোয়ান্টাম কম্পিউটিং, বায়োটেকনোলজি প্রভৃতি বিষয়ে গুরুত্ব দিতে হবে।

এদিকে বছর পূর্তিতে উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মো. শহিদুল ইসলাম সাদ্দাম বলেন- আগামী সংসদ নির্বাচন নিয়ে সকলে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করে যেতে হবে। আগামীতে প্রতিটি ইউনিয়ন গুলোতেও যেন এই সংস্কার সাধিত হয়, কলেজ, বিদ্যালয়ের শিক্ষাব্যবস্থার সঙ্গে যেন শিল্পের সম্পর্ক তৈরি হয় সেসব বিষয়কে আমরা ছাত্র আন্দোলনের বিষয়ে পরিণত করতে চাই। আমাদের বৈশ্বিক কিছু বিষয় রয়েছে, যেমন জলবায়ুর পরিবর্তন। জলবায়ু পরিবর্তনের ক্ষেত্রে কিন্তু বৈশ্বিকভাবে তরুণদের একটি আন্দোলন পরিচালিত হচ্ছে এবং বাংলাদেশ ক্ষতিগ্রস্ত দেশগুলোর মধ্যে একটি। তিনি আরও বলেন- জলবায়ু পরিবর্তনে আমাদের যে ক্ষতিপূরণ পাওয়ার কথা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা যেখানে জলবায়ু পরিবর্তনে বৈশ্বিক আন্দোলনের কণ্ঠস্বর সেখানে আমরা চাই এটি বৈশ্বিক ছাত্র আন্দোলনের একটি বিষয়ের অন্তর্ভুক্ত হোক। আমাদের সংগঠনের অভ্যন্তরে মেধাবী শিক্ষার্থীদের যারা প্রযুক্তিতে অগ্রগণ্য তাদের আমরা সাংগঠনিক প্রক্রিয়ার মধ্যে অন্তর্ভুধদধক্ত করতে চাই। এই প্যারাডাইমগুলো ছাত্রলীগ-রাজনীতিতে নিয়ে আসতে চাই এবং বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সবচেয়ে জোরালো যে সাংগঠনিক বৈশিষ্ট্য সেটি হচ্ছে আমরা পরিবর্তনশীল বিশ্ব বাস্তবতার সঙ্গে খাপ খাওয়াতে জানি। ছাত্রলীগ একটি আধুনিক ছাত্র সংগঠন মনে করেন বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
Design & Develop BY Coder Boss
themesba-lates1749691102