মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪, ০৭:৫৬ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
অভয়নগরবাসী আমাকে ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করলে অসহায় মানুষের পাশে থাকবো, ডাঃ সাফিয়া খানম পাইকগাছায় ভাইস-চেয়ারম্যান প্রার্থী চশমা প্রতীকের হাবিবুর রহমানের গণসংযোগ ও লিফলেট বিতরণ চট্টগ্রাম মহানগরীতে চালু হচ্ছে এসি বাস সার্ভিস নিরাপদ অভিবাসন ও বিদেশ ফেরতদের পুনরেকত্রিকরণ শীর্ষক কর্মশালা অনুষ্ঠিত গজারিয়া হোসেন্দী ইউনিয়ন পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান এর দ্বায়িত্ব গ্রহণ বিশ্ব মেডিটেশন দিবস সুবর্ণচরে মসজিদে ডুকে ইমামকে পেটালেন যুবদল নেতা কবিতাঃ দল পাকিয়ে গোদাগাড়ীতে গলায় ফাঁস দিয়ে মুরসালিন নামের একজনের আত্মহত্যা গোদাগাড়ী মডেল থানার পুলিশের অভিযানের ৬০ গ্রাম হেরোইনসহ আটক ২ জন

লন্ডন প্রবাসী সিলেটের তুহিন মিয়া মানেই একটি নক্ষত্র

বার্তা সম্পাদক
  • Update Time : শনিবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০২৩
  • ৮৭ Time View

নিজস্ব প্রতিনিধি :
সিলেটের ওসমানি নগরের আতাউল্লাহ গ্রামের মানুষের দীর্ঘ দিনের স্বপ্ন পূরন করলেন লন্ডন প্রবাসি তুহিন আহম্মেদ । গ্রামের মানুষের দীর্ঘ দিনের দাবি ছিলো আতাউল্লাহ গ্রাম থেকে দয়ামীর ডিগ্রী কলেজ পর্যন্ত রাস্তা করা। অবশেষে সেই স্বপ্নের দ্বার প্রান্তে চলে এসেছেন প্রবাসি নাগরিক তুহিন আহম্মেদ। সিলেটের ওসমানি নগরের আতাউল্লাহ গ্রাম থেকে দয়ামীর ডিগ্রী কলেজ পর্যন্ত রাস্তা প্রশস্ত ও পাঁকা করার যে পরিকল্পনা তিনি প্রবাসে বসে করেছিলেন, তার প্রাথমিক কাজ এরই মধ্যে শুরু হয়েছে। মঙ্গলবার গ্রামের সকলের উপস্থিতিতে মাটি কেটে রাস্তার কাজ শুরু করান তুহিন। গত একমাস ধরে দেশে অবস্থান করছেন প্রবাসি নাগরিক তুহিন আহম্মেদ। দেশে পা রেখেই গ্রামের মানুষের উন্নয়নের জন্য ছুটে যান জনপ্রতিনিধি এমপি জনাব মোকাব্বির খাঁনের কাছে। তার সহযোগিতায় এবং সরকারি অনুদানে রাস্তার প্রাথমিক কাজ এরই মধ্যে শুরু করেছেন। প্রবাসে থেকেও দেশের মানুষের কল্যানে এভাবে কাজ করে যাওয়ার জন্য গ্রামের সাধারন মানুষ তাকে সাধুবাদ জানাচ্ছেন। তারা বলেন- “তুহিন ভাইয়ের অক্লান্ত পরিশ্রমের ফল পেতে যাচ্ছি আমরা । উনি লন্ডনে থাকলেও গ্রামের মানুষের জন্য যে ভালোবাসা সেটি সত্তি প্রশংসিত। প্রবাসে থাকার পরও তিনি এমপি মোকাব্বির খাঁনের কাছ থেকে গ্রামের রাস্তা প্রশস্ত এবং পাঁকা করার জন্য যে বরাদ্দ এনেছেন, তার উপকার পাবে গ্রামের মানুষ। আমাদের আর বৃষ্টির দিনে কষ্ট করতে হবে না। আতাউল্লাহ থেকে দয়ামীর ডিগ্রী কলেজ পর্যন্ত রাস্তা হওয়াতে আমরা অনেক খুশি। গ্রামের সকল মানুষ সতস্ফুর্ত ভাবে নিজেদের জমির জায়গা ছেড়ে দিয়ে রাস্তা বড় করার কাজে তুহিন ভাইকে সহযোগীতা করছি।”
তুহিন আহম্মেদের কাছে জানতে চাওয়া হয়েছিল সামনে এ ধরনের জনকল্যাণমুখী আরো কিছু করার পরিকল্পনা আছে কিনা? জবাবে তিনি জানান- “এটাতো শুরু ইনশাআল্লাহ, আমি চাই আমাদের এই আতাউল্লাহ গ্রাম শহরে পরিনত হবে এবং আমি সবসময় চেষ্টা করে যাবো; জনমত নির্বিশেষে গ্রামের উন্নয়নে সবাই এভাবেই আমার পাশে থাকবে।”
শুধু রাস্তার কাজ না, তার এই সফরে তিনি এরই মধ্যে প্রায় দশটি পরিবারের জন্য বাড়ির চালের টিনের ব্যবস্থাও করেছেন।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
Design & Develop BY Coder Boss
themesba-lates1749691102