মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪, ০৭:২৫ অপরাহ্ন

জমে উঠেছে ইয়াংছা বাজার ব্যবসায়ী বহুমুখী সমবায় সমিতি লিঃ এর নির্বাচন!

সম্পাদক ও প্রকাশক
  • Update Time : শনিবার, ২০ এপ্রিল, ২০২৪
  • ২০ Time View

০৬ সদস্য বিশিষ্ট কমিটির মধ্যে ০৪ জন বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত চলছে সভাপতি পদ প্রার্থীদের শ্বাসরুদ্ধকর লড়াই!
বান্দরবান প্রতিনিধি

নানা শঙ্কা আর উদ্বেগ পার করে আগামী (০১ মে ২০২৪) রোজ বুধবার অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ইয়াংছা বাজার ব্যবসায়ী বহুমুখী সমবায় সমিতি লিঃ এর ত্রি-বার্ষিক নির্বাচন।

নির্বাচনকে ঘিরে ব্যবসায়ীদের পাশাপাশি স্থানীয়দের মাঝেও দেখা দিয়েছে খুশির আমেজ। পুরো বাজার ঘিরে পোস্টার, ব্যানার আর ফেস্টুনে ছেয়ে গেছে, প্রচার প্রচারণায় মুখর প্রার্থীরা। কথার বুলি আর নানা প্রতিশ্রুতি নিয়ে ভোটারদের দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন প্রার্থীরা।

০৩ নং ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের ১৯২.১২ বর্গকিলোমিটারের মধ্যে ইয়াংছা বাজারটি একটি ঐতিহ্যবাহী বাজার। বিভিন্ন প্রাচীন ও ঐতিহ্যতম স্কুল , মাদ্রাসা ও  মন্দির নিয়ে গঠিত এ ইউনিয়নটি সবার চিরচেনা। বাজারের পাশেই অবস্থিত ইয়াংছা আর্মি ক্যাম্প। যার কারণে এই বাজারে সংগঠিত হতে পারেনা সন্ত্রাসীয় কাজকারবার। অনেকে এই বাজারটির নাম দিয়েছে শান্তিপ্রিয় বাজার।

সকল জল্পনা কল্পনা শেষে নানা চড়াই উতড়াই পেরিয়ে একটি সুষ্ঠু ও ব্যবসায়ী বান্ধব কমিটি উপহার দিতে নির্বাচনী ইশতেহার অনুযায়ী ইয়াংছা বাজার ব্যবস্থাপনা কমিটি নির্বাচন ঘোষণা করেন নির্বাচন পরিচালনা কমিটি।

এ’নির্বাচনে সদস্য পদে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় সদস্য ০১ নির্বাচিত হয়েছে মনির কর, ও নং পদে মোঃ সোহেল।কোষাধ্যক্ষ হিসেবে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় কোষাধ্যক্ষ নির্বাচিত হয়েছে মোঃ জিয়াবুল ইসলাম। সাধারণ সম্পাদক হিসেবে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছিলো ২ জন,মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করার পরে মোঃ কামরুল ইসলাম তা জমা না দেওয়ার কারণে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছে মোঃ তালহা জুবায়ের।সহ-সভাপতি পদে মাত্র একজন মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করে জমা দেওয়ার কারণে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় সহ-সভাপতি নির্বাচিত হয়েছে মোঃ রফিকুল ইসলাম।
এখন শুধু সভাপতির পদ নিয়ে চলছে নির্বাচনী লড়াই।সভাপতি হিসেবে আনারস প্রতীকে লড়ছেন দুই বারের নির্বাচিত সভাপতি আব্দুল হামিদ।  অপর দিকে তার প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে চেয়ার প্রতীকে আছেন ০৩ নং ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মোঃ কামাল উদ্দীন এর ছেলে কাফি উদ্দিন।

ভোটারদের সাথে কথা বললে তারা জানান, সৎ, যেগ্য ও নেতৃত্বের গুণাবলী এবং দুঃসময়ে যাকে কাছে পাবেন, তাকেই নির্বাচিত করতে চান তারা।

চেয়ার প্রতীকে প্রতিদ্বন্দ্বীকারী কাফি উদ্দীন বলেন, অবহেলিত বাজারটিকে ব্যবসা বান্ধব করতে এ নির্বাচনটি যুগোপযোগী সিদ্ধান্ত। ব্যবসায়ীরা সঠিক নেতৃত্ব এনে ইয়াংছা বাজারের ঐতিহ্য ফিরিয়ে আনবে।
তিনি আরো বলেন,স্মার্ট ইয়াংছা বাজার নির্মাণে আমার নির্বাচনী ছয়টি প্রতিশ্রুতি আছে। তা হলো,: ইয়াংছা বাজার ব্যবসায়ীদের জান মালের সার্বিক নিরাপত্তায় সি সি টিভি ক্যামেরা স্থাপন ও নিরাপত্তা প্রহরী নিয়োগ  করবো ব্যবসায়ীদের মৃত্যুকালীন ভাতার ব্যবস্থা করবো,যেকোন বড় ধরণের প্রাকৃতিক দূর্যোগে, সংকটে প্রণোদনার ব্যবস্থা করবো। বাজারে ব্যবসায়ীদের সুবিধার্থে সৌর বিদ্যুৎ চালিত ল্যাম্পপোস্টর ব্যবস্থা করবো। বিজ্ঞ জনের পরামর্শে বাজারের সমস্যা  বাজারেই সামাধান করবো,ব্যবসায়ীদের আর্থিক ঋণ প্রয়োজনে তফসিলি ব্যাংকের সাথে  সমন্বয়ে  বিশেষ ভুমিকা রাখবো।অনাকাঙ্খিত অগ্নিকান্ড  নিয়ন্ত্রণের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা ও অগ্নিনির্বাপক যন্ত্রের ব্যবস্থা করবো।

অপরদিকে আনারস প্রতীকে প্রতিদ্বন্দ্বীকারী মোঃ আব্দুল হামিদ বলেন, আমার ব্যবসায়ী ভাইয়েরা তাদের মূল্যবান ভোট দিয়ে আমাকে দুইবার নির্বাচিত করেছে। আমি এবারেও আশাবাদী তারা ভোট দিয়ে আমাকে নির্বাচিত করবে।

নির্বাচন পরিচালনা কমিটির আহ্বায়ক, কৃষি কর্মকর্তা অমরজিৎ বলেন, উক্ত সমিতিতে মোট ১৭৪জন ভোটার রয়েছে। স্বচ্ছ ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচন অনুষ্ঠানের লক্ষ্যে সব ধরনের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে আমি চাই সুষ্ঠ, নিরপেক্ষ নির্বাচনের মাধ্যমে ব্যবসায়ীদের হাতে নেতৃত্ব তুলে দিতে। আমি তাদের সহযোগিতা কামনা করছি।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
Design & Develop BY Coder Boss
themesba-lates1749691102